বুধবার   ১৫ জুলাই ২০২০   আষাঢ় ৩১ ১৪২৭   ২৫ জ্বিলকদ ১৪৪১

৬৬

লিবিয়ায় বাংলাদেশিদের হত্যায় কাউকে ছাড় নয়: আইজিপি

প্রকাশিত: ৮ জুন ২০২০  

লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশিকে হত্যার ঘটনায় জড়িত অপরাধী চক্রকে খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক আইনি পদক্ষেপ নেয়ার কঠোর নির্দেশ দিয়েছেন আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ। সম্প্রতি এক জরুরি ভিডিও কনফারেন্সে আইজিপি এ নির্দেশনা দেন। তিনি বলেন, যারা আমাদের দেশের নাগরিকদেরকে প্রতারণার মাধ্যমে বিদেশে নিয়েছে, যাদের কারণে এ নির্মম মৃত্যু ঘটেছে তাদের একজনকেও ছাড় দেয়া হবে না।

কঠোর ওই নির্দেশে আইজিপি বলেন, এদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়ার পর আমি দ্বিতীয়বার তোমাদের সাথে এ বিষয়ে কথা বলবো, এর আগে নয়।

রোববার (৭ জুন) বাংলা‌দেশ পু‌লিশের এআই‌জি (মি‌ডিয়া অ্যান্ড পিআর) ‌মো.‌সো‌হেল রানা আইজিপির কঠোর এ নির্দেশনার কথা জানিয়েছেন।
সো‌হেল রানা জানান, আইজিপির কঠোর নির্দেশে তাৎক্ষণিকভাবে র‌্যাব, ডিএম‌পি, সিআইডি, পিবিআইসহ বাংলাদেশ পুলিশের মাঠ পর্যায়ের সংশ্লিষ্ট সব ইউনিট একযোগে অভিযানে নামে। এরই মধ্যে এ বিষয়ে রোববার পর্যন্ত মোট ২২টি মামলা করা হয়েছে। ইতোমধ্যেই ১৩ জনকে গ্রেফতার করে‌ছে পু‌লি‌শের বি‌ভিন্ন ইউ‌নিট। সংশ্লিষ্ট অন্যদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। অবৈধ প্রত্যেক মানব পাচারকারীর বিরুদ্ধে বাংলাদেশ পুলিশের এই অভিযান চলমান থাকবে।

তিনি জানান, বি‌দেশ গমনকারী বাংলাদেশিরা বৈধ উপায়ে, বৈধ পাসপোর্টে, বৈধ ট্যুরিস্ট বা অন্য ভিসায় প্রথ‌মে ভারত বা অন্য কো‌নো দে‌শে গমন ক‌রেন। এ সব ক্ষে‌ত্রে, উপযুক্ত ও বৈধ ট্রাভেল ডকুমেন্ট প্রদর্শন করেই তারা বাংলাদেশ ত্যাগ করে থা‌কেন। তারপর, দালাল ও পাচারকারীদের সহযোগিতায় ভারত বা সং‌শ্লিষ্ট দেশ থেকে নানা উপায়ে তারা লিবিয়া বা মধ্যপ্রা‌চ্যের উদ্দেশে পাড়ি জমান।

এছাড়া, কখনও কখনও দালা‌লের সহ‌যো‌গিতায় ভিন্ন উপা‌য়ে সীমান্ত পা‌ড়ি দেন কেউ কেউ। বি‌দেশ গম‌নের পন্থা যাই হোক। সংশ্লিষ্ট কতৃর্পক্ষ বা ব্যক্তির কাছ থে‌কে মানব পাচারের কোনো অভিযোগ পেলে পুলিশ প্র‌যোজ্য ক্ষে‌ত্রে যথানিয়মে আসামি গ্রেফতার করে আদালতে পাঠায় এবং যথা নিয়মেই তদন্ত করে তদন্ত প্রতিবেদন বিচারিক কার্যক্রমের জন্য আদালতে পাঠিয়ে থাকে বলেও জানান মো. সোহেল রানা।

নিউজ বাংলার আলো
নিউজ বাংলার আলো
এই বিভাগের আরো খবর