বুধবার   ২০ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৬ ১৪২৬   ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

৩৮৬

নদীতে ডুব দিয়ে সীমান্ত পেরিয়ে অস্ত্র আনতেন তারা!

নিজস্ব প্রতিবেদক:

প্রকাশিত: ৫ নভেম্বর ২০১৯  

বেনাপোল সীমান্তে নদীতে গোসলের কৌশলে সীমান্ত পেরিয়ে ভারত থেকে অস্ত্র আনার একটি চক্রের সন্ধান পেয়েছে পুলিশ। হাফিজুর রহমান নামের ওই চক্রটির একজনকে গোয়েন্দা পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। তার কাছ থেকে ১৭ রাউন্ড গুলিসহ চারটি বিদেশি আগ্নেয়াস্ত্রও উদ্ধার করা হয়েছে।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হাফিজুরকে সোমবার রাতে ঢাকার মিরপুর এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের উত্তর বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মশিউর রহমান।

মঙ্গলবার দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত তুলে ধরে তিনি বলেন, হাফিজুরদের চক্রটি কলকাতার অস্ত্র ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে অবৈধভাবে অস্ত্র এনে তা রাজধানীতে বিক্রি করত।’

মশিউর বলেন, ‘গ্রেপ্তার হাফিজুর রহমান, তার সহযোগী হাবিবুর রহমান বিশ্বাস ও জিল্লুর ভারত থেকে বেনাপোল দিয়ে চোরাইপথে অবৈধ অস্ত্র ও গুলি বাংলাদেশে আমদানি করেন। প্রথমে এসব অবৈধ অস্ত্র বিহার থেকে কলকাতার অস্ত্র ব্যবসায়ীদের মাধ্যমে সীমান্তের বিভিন্ন এলাকায় লুকিয়ে রাখা হয়।’

‘পরে বাংলাদেশি অস্ত্র ব্যবসায়ীদের সঙ্গে দরদাম ঠিক করা হতো। শেষে পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগনার আংরাইল সীমান্ত ও বাংলাদেশের বেনাপোলের পুটখালী সীমান্ত দিয়ে এসব অস্ত্র দেশে প্রবেশ করে।’

মশিউর রহমান বলেন, ‘তারা (চক্রটি) নদীতে গোসল করার কৌশলকে কাজে লাগিয়ে এসব অস্ত্র দেশে এনে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করত।’

গোয়েন্দা পুলিশের এই কর্মকর্তা জানান, এসব অবৈধ অস্ত্র সন্ত্রাসী কার্যক্রম, রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা ও জঙ্গি গোষ্ঠী তাদের বিভিন্ন নাশকতার কাজে ব্যবহারের জন্য কিনে নিতো।

তিনি বলেন, ‘অস্ত্র ব্যবসায়ীরা ভারত থেকে ৩০ হাজার টাকায় কিনে এনে দেশে বেশি দামে বিক্রি করত বলে জানতে পেরেছি।’

নিউজ বাংলার আলো
নিউজ বাংলার আলো
এই বিভাগের আরো খবর